বিশ্বের প্রথম সেলফি!

হাসান বিপুল
on May 21, 2015, updated December 15, 2015


 বিশ্বের প্রথম সেলফি!
© মার্কিন লাইব্রেরি অফ কংগ্রেস রবার্ট কর্নেলিয়াসের তোলা সেলফি

অক্টোবর বা নভেম্বর মাস, ১৮৩৯ সাল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়ায় ৩০ বছর বয়সী রবার্ট কর্নেলিয়াস জানতেন না তিনি যে কাজটি করতে যাচ্ছেন তার নামকরণ হবে প্রায় ১৬৩ বছর পরে।

অল্প কিছুদিন আগেই উদ্ভাবিত হয়েছে একই কাজের দুইটি পদ্ধতি। বিলেতি আর ফরাসীদের আজন্ম প্রতিযোগিতার ধাক্কা এসে লেগেছে এই নতুন প্রযুক্তিতেও। প্রযুক্তিটি আলোকচিত্র ‘ধারণ করার’।

আলো দিয়ে তৈরি হওয়া ছবি বা এককথায় যাকে বলা যায় ‘আলোকচিত্র’ তার আবিষ্কার হয়েছে হাজার বছর আগেই। অ্যারিস্টটলের সময়েও লেন্সের ভেতর দিয়ে আসা উল্টো প্রতিবিম্ব কোনো তলে ফেলে কোনো দৃশ্য ফুটিয়ে তোলা হত। অল্প কিছুদিনের ব্যবধানে ফরাসী গবেষক লুই দ্যগুয়ে আর ব্রিটিশ হেনরি ফক্স ট্যালবট উদ্ভাবন করেছেন কাঁচের উপর ওই প্রতিবিম্ব স্থায়ীভাবে ধারণ করার পদ্ধতি। দুজনের নাম অনুসারে পদ্ধতি দুটিকে বলা হল যথাক্রমে দ্যগুয়েরটাইপ আর ট্যালবোটাইপ। ওই নামে নিজ নিজ দেশে পেটেন্টও করিয়ে নিয়েছিলেন দুজন।

রবার্ট কর্নেলিয়াস কাজ করছিলেন দ্যগুয়েরটাইপ নিয়ে। প্রযুক্তিবিষয়ক খবরের সাইট ম্যাশএবলে ওই দিনের ঘটনাটিকে বর্ণনা করা হয়েছে এভাবে- ১৮৩৯ সালের অক্টোবর বা নভেম্বর মাসে ফিলাডেলফিয়ায় জনৈক রবার্ট কর্নেলিয়াস, বয়স ৩০, তার বাবার দোকানের পেছনে ক্যামরার লেন্স ক্যাপ খুললেন, ছুটে গিয়ে বসলেন ফ্রেমের আওতায় এবং অনড় বসে থাকলেন প্রায় পাঁচ মিনিট। এবং এর মাধ্যমে তিন যা করলেন, তা সম্ভবত ইতিহাসের প্রথম ‘সেলফ পোরট্রেইট’।

ছবিটির পেছনে কর্নেলিয়াস লিখেছিলেন, ‘দ্য ফার্স্ট লাইট পিকচার এভার টেইকেন, ১৮৩৯’।

নিজের ছবি নিজে তোলার এখন বিশ্বব্যপী প্রচলিত নাম ‘সেলফি’। যে শব্দটির প্রথম ব্যবহার ২০০২ সালে এবং ব্যাপক প্রচলন ২০১০-এর পর থেকে।

সেলফি কী?

অন্যের সাহায্য ছাড়াই তোলা নিজের ছবিকে সেলফি বলা হয়। ২০১৩ সালে প্রথমবারের মতো সেলফি শব্দটি অক্সফোর্ড অভিধানে যোগ করা হয়। সেখানে যা বলা হয়েছে, তার বাংলা হল—

সেলফি (বিশেষ্য) নিজেই তোলা নিজের ছবি, যা সাধারণত স্মার্টফোন বা ওয়েব ক্যাম ব্যবহার করে তোলা হয় এবং সোশাল মিডিয়ায় ব্যবহার করা হয়।

"The pictures are there, and you just take them." ~ Robert Capa